নার্সিং ভর্তি পরীক্ষার নোটিশ আসবে কিছু দিনের মধ্যেই (২০২০ - ২১ সেশনের) - Nursing

নার্সিং ভর্তি পরীক্ষার নোটিশ আসবে কিছু দিনের মধ্যেই (২০২০ - ২১ সেশনের)

করনার মধ্যে কি নার্সিং ভর্তি পরীক্ষা হবে?

কেউ যদি মনে করেন পরীক্ষা হবেনা, তাহলে ভুল ভাবছেন। নার্সিং ভর্তি পরীক্ষা কতদিন পরে বা কবে হবে সেটা নির্ভর করছে বিভিন্ন পাবলিক ভার্সিটির পরীক্ষাগুলোর উপর। কেননা পাবলিক ভার্সিটিগুলোর পরীক্ষা হয়ে গেলেই নার্সিং ভর্তি পরীক্ষা ইতিপূর্বে হয়ে এসেছে।

চলুন জেনে নেই পাবলিক ভার্সিটিগুলোর পরীক্ষা কতদুর এগিয়েছে এবং নার্সিং পরীক্ষার সম্ভাবনা কোন অবস্থায় রয়েছে।

কিছুদিন আগে মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষা বন্ধ করবার জন্য উচ্চ আদালতে রিট করা থাকা অবস্থাতেই পরীক্ষা হয়ে গিয়েছে এবং রেসাল্টো হয়ে গিয়েছে। মেডিক্যাল পরীক্ষার পরে এখন দেখার বিষয় ছিল প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর পরীক্ষার তারিখ। এক্ষেত্রে সর্বপ্রথম নাম আসবে বুয়েটের ভর্তি পরীক্ষার। বুয়েট কর্তৃক ভর্তিফ্রম পুরণের তারিখ দিয়েছে আগামি ১৫ই এপ্রিল থেকে এবং চূরান্ত ভর্তি পরীক্ষার তারিখ দেয়া হয়েছে ১০ জুন। বুয়েট কর্তৃপক্ষ থেকে জানা গিয়েছে করোনার কারণে সারা দেশে লকডাউন চললেও ফ্রম পূরণের তারিখ পিছানো হবেনা এবং করোনার মধ্যে মহামারি দেখা দিলেও পরীক্ষা নেবে বলে জানিয়েছে বুয়েট। এজন্য এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বুয়েট কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে দুটি গ্রুপে আবেদন করা শিক্ষার্থীদের নিয়ে চার শিফটে আগামী ৩১ মে ও ১ জুন প্রাক-নির্বাচনী পরীক্ষা নেওয়া হবে। তবে সাড়াদেশে যানচলাচল বন্ধ থাকলে পরীক্ষার তারিখ পিছানো হবে। অন্যথায় স্বাস্থ্য বিধি মেনে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা অনুষদের অধীনে জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠানে (নিটোর) বিএসসি ইন ফিজিওথেরাপি কোর্সের প্রথম বর্ষে শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে গত ০৪/০৪/২১ ইং তারিখে।

এদিকে UGC কর্তৃক ২০ টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার ব্যাবস্থা করা হয়েছে। মহামারি কালিন সময়ে এক বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা শেষ করে আরেক বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্দেশ্যে দৌড় ঝাপ করার ঝামেলা কমে গিয়েছে এজন্য। পরীক্ষার্থীর নিকটবর্তী বিশ্ববিদ্যালয়েই একটি পরীক্ষা দিয়েই ২০ টি বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা দেয়া হয়ে যাবে। করোনার কারণে আবেদনের সময় বাড়ানোর সুপারিশ করা সত্বেও সময় বাড়ানো হবেনা বলে জানানো হয়েছে গতকাল (১১ই এপ্রিল) UGC কর্তৃক।

এখন আসি মূল কথায়। নার্সিং ভর্তি পরীক্ষার নোটিশ কখন দেয়া হবে?

নার্সিং ভর্তি বিজ্ঞাপন আগামি অক্টোবর মাসের মধ্যেই দেয়া হবে বলে আমরা ধারণা করছি, আমাদের কাছে থাকা সর্বশেষ তথ্য উপাত্তের আলোকে। তবে তার আগেই নোটিশ আসবে, কেননা পাবলিক ভার্সিটিগুলোর পরীক্ষা আগস্টের মধ্যেই শেষ হয়ে যাবে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই নার্সিং ভর্তি পরীক্ষার তারিখও আগানো হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তাই নার্সিং ভর্তি ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের হাতে আছে সর্বোচ্চ ৫ থেকে ৬ মাস সময়। এই সময়ের মধ্যে প্রিপারেশন নেয়ার জন্য জানানো হচ্ছে সবাইকে।

কেন করণার কারণে ভর্তি পরীক্ষা পিছাবেনা?

কারণ ইতোমধ্যে সরকার অটোপাশ দিয়ে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকের শিক্ষার্থীদের প্রমোশন দিয়ে দিয়েছে। এদিকে আবারো আরেকটি ব্যাচকে অটোপাশ দেয়ার সময় হয়ে গিয়েছে। এই মুহূর্তে ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১ম বর্ষে ভর্তি না করলে আগামি বছরে পরীক্ষা গড়াবে। ফলে ভর্তির জন্য তিন ব্যাচের শিক্ষার্থীর পরীক্ষা একসাথে পড়ে যাবে। তখন না সম্ভব হবে পরীক্ষা নেয়া, আবার বিশ্ববিদ্যালয় গুলোও একসাথে তিনি ব্যাচের শিক্ষার্থীদের পাঠদান করতেও বা ভর্তি নিতেও ব্যার্থ হবে। 

এজন্য সরকারিভাবে UGC এবং সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের সিদ্ধাক্রমে যেভাবেই হোক ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন করা হবে বলে জানা যায়। ভর্তি পরবর্তী ভার্চুয়াল ক্লাস শুরু করা হবে যদি করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হয়। 

সর্বশেষ মূল কথা হলো করোনা পরিস্থিতি যাই থাকুক না কেন ভর্তি কার্যক্রম যথাযথভাবে সম্পন্ন হবে। এজন্য যার যার অবস্থান থেকে ভর্তিযুদ্ধে জয়ী হয়ে নিজের ক্যারিয়ার গঠনে মনোযোগি হতে হবে।

বিশেষ করে নার্সিং প্রফেশনে আসতে যারা স্বপ্ন দেখছেন তাদের জন্য শুভকামনা।

Powered by Blogger.